আদার বড়ি

মৌসুমি ঠান্ডা-কাশিতে নাজেহাল? গলা খুসখুসে ভাব দূর অরে ঠান্ডার অস্বস্তি থেকে রেহাই পেতে খেতে পারেন আদার বড়ি। মাত্র ৫ মিনিটেই এই আদার বড়ি বানিয়ে ফেলা যায়। ঠান্ডায় আরাম তো মিলবেই, পাশাপাশি হজমের সমস্যা থাকলে দূর হবে সেটাও। জেনে নিন কীভাবে বানাবেন আদার বড়ি।

যা যা লাগবে এবং যেভাবে করতে হবে-

★আস্ত আদা বড়-৪পিস।

চুলার আগুনের উপর রেখে পুড়িয়ে নিতে হবে। আদার খোসাটা পুড়ে গেলেই চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে। আদার খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে ছোট টুকরো করে কেটে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে আদার পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে।

আদা না পুড়িয়ে ছিলে/খোসা ছাড়িয়ে ধুয়ে কেটে ছোট টুকরো করে ব্লেন্ডারে ব্লেন্ড করে নিলে ও হবে।

চুলায় প্যান বসিয়ে তাতে দিতে হবে ব্লেন্ড করা আদা।সাথে দিতে হবে-

★ গুড়/চিনি হাফ কাপ।

★ঘি-২টে চামুচ।

অল্প আচে নাড়তে হবে অনবরত। নাড়তে নাড়তে যখন আদার কালার চেনজ হয়ে লালচে কালার হয়ে যাবে এবং আদা একদম হালুয়ার মতো হয়ে যাবে তখনই চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে। দেখে বুঝে নামাতে হবে। যখন মনে হবে হাত দিয়ে গোল বল/হালুয়ার মতো করে কেটে নেয়া যাবে তখনই চুলা থেকে নামিয়ে নিতে হবে।

ঘি ব্রাশ করা প্লেটে ঢেলে হাত দিয়ে/চামুচ দিয়ে প্লেটে সমানভাবে ছড়িয়ে দিতে হবে। ছোট বোতলের মুখ দিয়ে গোল গোল করে কেটে নিতে হবে। গোল করে কাটার পর বাড়তি যে অসমান অংশ থাকে হাতে সামান্য ঘি মাখিয়ে সেই অসমান অংশ থেকে একটু করে নিয়ে হাতের তালু তে ঘুরিয়ে ঘুরিয়ে বড়ির মতো করে বানিয়ে নিতে হবে। গোল চ্যাপটা যেমনই হোক না কেন সেটা যেন খুব বেশি বড় না হয়।ছোট বড়ির সাইজ অথবা চকলেটের সাইজ হলে একটা খাওয়া যায় এই পরিমানে বানাতে হবে।

★এই বড়ি বানাতে কোন কিছু মেপে নেয়ার প্রয়োজন হয় না নিজের আন্দাজ মতো সব নিলেই হবে।

★ঠান্ডা জনিত সমস্যা সর্দি খুশখুশে কাশি গলা ব্যাথা সারাতে কার্যকরি এই আদার বড়ি/আদার চকলেট।

★চিনির পাউডারে গড়িয়ে বয়ামে ভরে রেখে দিলে অনেক দিন ভালো থাকবে।

Leave a Comment