টমেটো ভর্তা

টমেটোর ভর্তা

গরম ভাতের সঙ্গে টমেটো ভর্তা খেতে খুবই সুস্বাদু। বেটে নেওয়ার ঝামেলা ছাড়াই মজাদার এই ভর্তাটি ঝটপট করে নিতে পারবেন। জেনে নিন কীভাবে।

উপকরণ

৪টি টমেটো মাঝারী সাইজ

টেবিল চামচ ধনেপাতা

২ টি কাঁচামরিচ কুচি (সেদ্ধ করে নিলে ভাল)

মাঝারি সাইজের ১টি পেঁয়াজ কুচি

লবণ স্বাদ মতো

সরিষার তেল ১চা চামচ।

(শুকনা মরিচ ২ টা কেঊ চাইলে দিতে পারে )

প্রস্তুত প্রণালি

টমেটো ভালো করে ধুয়ে নিন। চুলায় মৃদু আঁচে একটি প্যান বসান। সামান্য তেল দিয়ে টমেটো দিয়ে ঢেকে দিন। প্রায় ৫ মিনিট পর টমেটো উল্টে দিন।

এভাবে পুরো টমেটো পুড়ে দিন। বারবার উল্টেপাল্টে দিতে হবে।

সেদ্ধ হয়ে পোড়া পোড়া হয়ে গেলে চামচ দিয়ে টমেটো অর্ধেক করে উল্টো করে রাখুন।

এতে টমেটোতে থাকা বাড়তি পানি দূর হবে। একটি বাটিতে টমেটোর টুকরা নিয়ে চামড়া সরিয়ে ফেলুন।

শুকনা মরিচ টেলে লবণ দিয়ে মেখে নিন। পেঁয়াজ কুচি, সরিষার তেল, কাঁচামরিচ কুচি ও ধনেপাতা দিয়ে মেখে নিন শুকনা মরিচ।

টমেটো হালকা ভর্তা করে পেঁয়াজ ও মরিচের মিশ্রণের সঙ্গে ভর্তা করে নিন।

পরিবেশন করুন রুটি ভাত বা ভুনা খিচুড়ীর সাথে।

টিপস—-

যারা সালাদে টমেটো খেতে পারেন না হজম কম হয় তারা ভরতা করে খেতে পারেন।

রুচি বাড়াতে খেতে পারেন।

সেদ্ধ করা খাবার তাই পুস্টি বেশি।

যাদের গ্যাস্ট্রিক বা বুক জ্বালা আছে তারা শুকনা মরিচ খাবেন না।

ভরতা হাত না দিয়ে চামচ দিয়ে করুন তাহলে হাত জ্বলবে না।

টমেটোতে আছে ভিটামিন সি ও লাইকোপ্যান যা শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

মুখের ঘা ও ত্বকের ঊজ্বলতা বাড়াতে টমেটোর জুড়ি মেলা ভাড়।

অল্প সময়ে ভরতা হয়ে যায় তাই সহজ রেসিপি যে কেঊ করে খেতে পারেন।

এই শীতে ঊপভোগ করুন টক টক ঝাল ঝাল টমেটো ভরতা।

Leave a Comment