রুপচাঁদা শুঁটকি ভুনা

আয়োডিনের সর্বোৎকৃষ্ট উৎস হিসেবে ধরা হয় সামুদ্রিক মাছ। এক্ষেত্রে রুপচাঁদা মাছ আয়োডিনের পাশাপাশি ভিটামিন এবং ক্যালসিয়ামের ভালো উৎস। রুপচাঁদা মাছে আছে ভিটামিন এ, ডি, বি১২ যা হাড় ও দাঁতের ক্ষয়রোধে সাহায্য করে। এছাড়া যারা চুল এবং ত্বকের বিভিন্ন সমস্যায় ভুগছেন তাদের জন্য প্রোটিনের সর্বোত্তম উৎস হিসেবে রুপচাঁদা মাছের শুঁটকি খাওয়া খুবই জরুরি।

রুপচাঁদা শুঁটকি ভুনা

উপকরণ:

  • রূপচাঁদা শুঁটকি ১টি
  • পেঁয়াজকুচি ২ কাপ
  • তেল পরিমাণ মতো
  • আদাবাটা পরিমাণ মতো
  • আপনার ঝাল সহ্য করার ক্ষমতার উপর মূলত নির্ভর করবে কতটুকু কাঁচামরিচ ব্যবহার করবেন এই রান্নায়, তবুও ৫ থেকে ৬টা কাঁচামরিচ দেওয়া উচিত, রান্নাটাকে সুস্বাদু করার জন্য
  • রসুনকুচি আধা কাপ
  • টমেটোকুচি আধা কাপ
  • ধনেগুঁড়া ১/২ চা-চামচ
  • মরিচগুঁড়া ৩ চা-চামচ
  • হলুদগুঁড়া দেড় চা-চামচ
  • লবণ স্বাদ মতো

পদ্ধতিঃ

রূপচাঁদা শুঁটকি প্রথমে পরিষ্কার করে ধুয়ে, অন্তত ২ ঘণ্টা পানিতে ভিজিয়ে রাখুন। এতে শুঁটকির সাথে থাকা বালি ও ময়লাগুলো ঝরে যাবে। ভিজিয়ে রাখার পর শুঁটকি নরম হয়ে এলে ছোট ছোট করে কেটে নিন। এবার প্যানে পরিমাণ মত তেল দিন।

তেল গরম হলে তাতে পেঁয়াজকুচি, রসুনকুচি, সামান্য আদাবাটা, ধনেগুঁড়া, মরিচ, হলুদ, তেল, লবণ, কাঁচামরিচ আর টমেটো কুচি সহ সব মসলা ভালো করে আস্তে আস্তে ভেজে নিন।

পেঁয়াজ নরম হয়ে এলে এবং হালকা বাদামী বর্ণ ধারণ করলে তাতে রূপচাঁদা শুঁটকি দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজতে থাকুন। এবার অল্প পানি দিয়ে ভালো করে কষিয়ে ঢেকে দিন। কিছুক্ষণ পর ঢাকনা খুলে দেখুন, যদি পানি কমে তরকারিটা মাখা মাখা হয়, তাহলে তাতে কাঁচামরিচ দিয়ে চুলা থেকে নামিয়ে ফেলুন।

সবশেষে গরম গরম ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন। উপভোগ করুন মজাদার রূপচাঁদা শুঁটকি মাছের ভুনা!

এই রেসিপি অনুযায়ী রান্না করলে আশা করা যায় যে শুঁটকি মাছ দেখলেই যে বা যারা নাক সিটকান, তারাও শুঁটকি ভুনার প্রেমে পড়ে যাবেন! তাহলে আর দেরি কেন? শীতের সকালে নিজেকে চাঙ্গা করে তুলতে আজই মুখরোচক রূপচাঁদা শুঁটকির ভুনা রান্না করেই দেখুন না!

Leave a Comment