সুজির প্যানকেক

ঊপকরন—

সুজি-১ কাপ

টকদই-হাফ কাপ

পানি – হাফ কাপ

পেঁয়াজ কুচি -১টা মাঝারী

টমেটো কুচি -২ টা মাঝারী

লবন-হাফ চা চামচ

তেল-সামান্য

কাঁচামরিচ কুচি -৩টি

ধনেপাতা কুচি -১চা চামচ

প্রনালী—

প্রথমে একটি পাএে এককাপ সুজি হাফ কাপ টকদই হাফ কাপ পানি ও হাফ চামচ লবন দিয়ে ভাল মতো করে মিশিয়ে গোলা বা ব্যাটার তৈরী করতে হবে।

মিশ্রনটি ৫ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে ।যদি বেশি ঘন হয় সে ক্ষেএে আর একটু পানি যোগ করা যাবে।গোলা খুব পাতলা না আবার বেশি ঘন না মিডিয়াম রাখতে হবে।

এবার একটি পাএে পেঁয়াজ কুচি টমেটো কুচি ধনেপাতা কুচি কাঁচা মরিচ কুচি একটু লবন দিয়ে একটু হালকা করে নেড়ে রেখে দিতে হবে।

এবার ফ্রাইপ্যান গরম করে হালকা একটু তেল ব্রাশ করে নিতে হবে এবং একটা গোল চামচের এক চামচ গোলা ফ্রাইপ্যানে দিতে হবে এবার ঊপরে টমেটো কুচির মিশ্রন দিয়ে দিতে হবে।

এবং৩০ সেকেন্ড ঢেকে রাখতে হবে।এক পাশ হলে আরেক পাশ ঊল্টে দিতে হবে এবং কয়েক সেকেন্ড ভাজতে হবে।

এবার নামিয়ে ফেলতে হবে।

বেশ হয়ে গেল গরম গরম সুজির প্যানকেক।

টিপস—

অবসাদ ও সর্দি মোকাবিলা করতে পারে টমেটো। টমেটোতে থাকা বিটা ক্যারোটিন শরীরে ভিটামিন এ হিসেবে রূপান্তরিত হয়। এতে শরীর সুরক্ষিত থাকে। যেসব ভাইরাস সর্দি-কাশি সৃষ্টি করে, তাদের বিরুদ্ধে লড়তেও সাহায্য করে ক্যারোটিন।

বুড়িয়ে যাওয়া কিংবা জীবনযাপন-সম্পর্কিত নানা সমস্যা সমাধান করতে পারে টমেটো। অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট হিসেবে বিটাক্যারোটিনের দ্বিগুণ প্রভাব ফেলে।

এ ছাড়া ভিটামিন ই-এর চেয়ে শতগুণ কার্যকর। এই লাইকোপিনের জন্য শরীরে ক্যানসার বাসা বাঁধতে পারে না।

যেহেতু টক দই টমেটো দেয়া তাই অনেক হেলদি খাবার।

তেল কম তাই সবাই খেতে পারবে।

টকদই এ আছে প্রোবায়োটিক যা পেটের জন্য ভাল।

যারা হেলদি নাস্তা খুজছেন তারা অনায়াসে এটি খেতে পারেন।

Leave a Comment